Monday, April 22, 2024

মধ্যপ্রদেশ প্রস্রাবকাণ্ডের আদিবাসী ব্যাক্তির পা ধুইয়ে ক্ষমা চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী, বুলডোজার চালানো হল অভিযুক্তের বাড়িতে

শর্মিষ্ঠা ঘোষঃ বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশে আদিবাসী যুবকের সঙ্গে ঘটল নিন্দনীয় ঘটনা। একটি ভিডিয়োতে দেখা যায়, বিজেপি কর্মী মদ্যপ অবস্থায় একজন আদিবাসী ব্যক্তির ওপর প্রস্রাব করছে। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের সিধি জেলায়। গোটা ঘটনাটি সোস্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিয়োটি ভাইরাল হতে সোস্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন সমালোচনার ঝড় ওঠে। ভিডিওতে দেখা যায় বিজেপি কর্মী দোকানের সামনে বসা একজন আদিবাসী ব্যক্তির গায়ে প্রস্রাব করছে। বিজেপি কর্মীর নাম প্রবেশ শুক্লা। ঘটনাটি ঘিরে একের পর এক বিরোধী নেতা তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

বুধবার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেন, “বিজেপি শাসনে আদিবাসী ভাইবোনদের ওপর অত্যাচার বাড়ছে। বিজেপি নেতার এই অমানবিক অপরাধে সমগ্র মানবতা লজ্জিত হয়েছে। এই ঘটনা আদিবাসী ও দলিতদের প্রতি বিজেপির আসল চরিত্র তুলে ধরা হয়েছে”।

কংগ্রেস নেতা বি.ভি. শ্রীনিবাস বলেন, “বিজেপি জনজাতিদের অধিকার নিয়ে যে বড় বড় বক্তৃতা দেন, এই ভিডিওর মাধ্যমে তাদের প্রকৃত আচরণ ও মানসিকতা প্রকাশ পাচ্ছে”।

এছাড়াও মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্যাগ করে বিরোধী কংগ্রেস নেতারা লেখেন, “এটাই কি আদিবাসীদের প্রতি ভালোবাসা? এই জঙ্গলরাজ কে কি নামে ডাকা হবে? কেনই বা ওই বিজেপি নেতাকে এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়নি”?

বিরোধীদের হাজার প্রশ্ন ও ভিডিও ভাইরাল হওয়ার চাপে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানও এই ঘটনার প্রতিবাদ জানায়। তিনি বলেন, “সিধি জেলায় একটি ভাইরাল ভিডিও আমার নজরে এসেছে। অভিযুক্তকে এনএসএ ওরফে জাতীয় সুরক্ষা আইনে গ্রেপ্তার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে”।

সেই নির্দেশই অভিযুক্ত প্রবেশ শুক্লাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারা ২৯৪ ও ধারা ৫০৪ এবং তপশিলি জাতি ও তপশিলি উপজাতি আইনের আওতায় মামলার রজু করা হয়েছে।

এরপর প্রশাসনের নির্দেশে প্রবেশের বাড়ি বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। প্রশাসনের তরফ থেকে বলা হয়েছে, বেআইনিভাবে নির্মাণ প্রবেশের এই বাড়ি। তাই সরকার ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। তবে অভিযুক্তর পরিবার থেকে জানানো হয়, “ভিডিওটি বানানো। পুরনো ভিডিও কে নতুন করে বানিয়ে প্রকাশ করেছে নির্বাচনের জন্য”।

প্রবেশ শুক্লালার এমন নিন্দনীয় ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। ঘটনার ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পরই তিনি এই ঘটনার জন্য মর্মাহত। ঘটনার জেরে বৃহস্পতিবার সকালে ওই আদিবাসী ব্যক্তিকে মুখ্যমন্ত্রী বাসভবনে ডেকে পাঠানো হয়। সেখানে আদিবাসী ব্যক্তির পা ধুয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী নিজে। সেই পা ধোওয়া ছবি সোস্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শিবরাজ সিং চৌহান বলেন, “আমি খুব দুঃখিত এই নিন্দনীয় ঘটনায়। দাষ্মান্ত রাভজীর পা ধুয়ে তাঁর অপমানজনক যন্ত্রণাকে ভাগ করার চেষ্টা করছি। সেই সঙ্গে ক্ষমাও চাইছি তাঁর কাছে। কারণ সাধারণ মানুষ আমার কাছে ভগবান।

আরও পড়ুন তিলোত্তমা সফরে আসছেন আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী গোলকিপার মার্টিনেজ

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Stay Connected

3,541FansLike
3,210FollowersFollow
2,141FollowersFollow
2,034SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles