Tuesday, July 16, 2024
More

    সোশ্যাল মিডিয়ার ডিপি বদলের আহবান, খোদ প্রধানমন্ত্রী মোদীর

    স্বাধীনতা দিবসের ঠিক আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi) মঙ্গলবার তার সোশ্যাল মিডিয়ার ডিসপ্লে পিকচার(DP) পরিবর্তন করে ভারতের জাতীয় পতাকার ছবি পোস্ট করেন, এবং সকল দেশবাসীকেও 2 আগস্ট থেকে 15 আগস্ট পর্যন্ত তাদের ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটারের মত সোশ্যাল মিডিয়ার প্রোফাইল পিকচার বা ডিপি পরিবর্তন করে তেরঙা বা জাতীয় পতাকার ছবি দেওয়ার আবেদন জানান।

    এই কার্যসূচি আসলে ‘হর ঘর তেরঙা’ #HarGharTirangaএক যৌথ প্রকল্প। স্বাধীনতার 75 বছর উদযাপনে ভারত সরকারের ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’-এর অঙ্গ হিসেবে সরকার 13 থেকে 15 অগস্ট ‘হর ঘর তেরঙা’ কর্মসূচি চালু করতে চলেছে এই সমস্ত কর্মসূচির মাধ্যমে মানুষকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করা এবং 75তম স্বাধীনতা দিবসে জনসাধারণের অংশগ্রহণই সরকারের লক্ষ্য। তিনি এই দিন জাতীয় পতাকার ডিজাইনার পিঙ্গালি ভেঙ্কায়ার জন্মবার্ষিকীতে তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে টুইট করেন।

    22 জুলাই একটি টুইটে  তিনি 1947 সালের এই দিনের ঐতিহাসিক গুরুত্ব লিখে  এই ক্যাম্পেনের কথা বলেন ৷ মানুষের হৃদয়ে দেশাত্মবোধ জাগানো এবং জাতীয় পতাকা নিয়ে সচেতনতামূলক এই প্রচারের দায়িত্বে রয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক৷

    একটি আদেশের মাধ্যমে 20 জুলাই 2022 তারিখে ফ্ল্যাগ কোড অফ ইন্ডিয়া-2002 সংশোধন করা হয়েছে। আগে যেখানে শুধু সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত তেরঙা উত্তোলনের অনুমতি ছিল, বর্তমানে তা দিন ও রাতেও প্রর্দশন করা যেতে পারে। একইভাবে, ফ্ল্যাগ কোডের আরেকটি বিধান সংশোধন করে আগে যেখানে মেশিনে তৈরি ও পলিয়েস্টারের তৈরি জাতীয় পতাকা ব্যবহারের অনুমতি ছিল না, তা পরিবর্তন করে বর্তমানে জাতীয় পতাকা তুলো, পলিয়েস্টার, উল, রেশম বা খাদি দিয়ে তৈরিরও বিধান দেওয়া হয়েছে।

    কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক এই বিশেষ দিনটি উদযাপনের জন্য একটি ওয়েবসাইটও চালু করেছে এবং ‘হর ঘর তেরঙা’ অভিযানকে আরও ছড়িয়ে দিয়েছে। এখনও পর্যন্ত 28টি রাজ্য ও 8টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মিলিয়ে 50 হাজারেরও বেশি অনুষ্ঠান সফলভাবে আয়োজন করা হয়েছে অমৃত মহোৎসবের অংশ হিসেবে।

    কর্পোরেট মন্ত্রক কোম্পানিগুলিকে ‘কর্পোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি’ তহবিলের টাকা দিচ্ছে ‘হর ঘর তেরঙা অভিযান’ পালন করতে। তহবিলের টাকায় প্রচুর সংখ্যক পতাকা তৈরি করা, চতুর্দিকে তা ছড়িয়ে দেওয়া এবং এ সংক্রান্ত অন্য সব খরচ দেবে সরকার৷ 20 কোটি বাড়িতে এই পতাকা উত্তোলনের লক্ষ্যমাত্রা রেখেছেন কেন্দ্রীয় সরকার এবং এর ন্যূনতম মূল্য 10 টাকা, তাই এই উদযাপনে 200 কোটি টাকারও বেশি খরচ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

    Related Articles

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

    Stay Connected

    3,541FansLike
    3,210FollowersFollow
    2,141FollowersFollow
    2,034SubscribersSubscribe
    - Advertisement -

    Latest Articles