Friday, February 23, 2024

একাধিক বাধা কাটিয়ে হাটগোবিন্দপুরে ১৪ তম নাট্যোৎসবের আয়োজনে সমবেত প্রয়াস

একাধিক বাধা কাটিয়ে সফলভাবে ২ দিনের নাট্যোৎসবের আয়োজন হল হাটগোবিন্দপুরে। বর্ধমান শহর থেকে কয়েক কিমি দূরে শনি ও রবিবার গ্রামীণ শীতের সন্ধ্যায় জমাজমাটিভাবে সম্পন্ন হল দুদিনের উৎসব।

সমবেত প্রয়াস নামক নাট্য ও সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর উদ্যোগে ১৬ ডিসেম্বর শনিবার হাটগোবিন্দপুরে দ্বিজেন্দ্রলাল মুক্তমঞ্চে সূচনা হয় ১৪ তম নাট্যোৎসব ২০২৩-এর। প্রদীপ জ্বালিয়ে উৎসবের সূচনা করেন বর্ধমান উত্তর কেন্দ্রের বিধায়ক সহ বিশিষ্টরা। উদ্বোধনের দিনেই স্থানীয় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে কৃতীদের সংবর্ধনা দিয়ে শুরু হয় উৎসবের। সেদিন প্রথমে উত্তরপাড়ার ‘উত্তরায়ণ’ নাট্য সংস্থার উদ্যোগে মঞ্চস্থ করা হয়, ‘ফল্গুধারা’ ও দ্বিতীয়ার্ধে মঞ্চস্থ করা হয় ইনসাউড আউট বর্ধমানের প্রযোজনায় ‘গুলশন’ নাটক।

নাটক ‘ঈশ্বর এক হিরণ্ময় পুরুষ’ প্রযোজনা চন্দননগর যুগের যাত্রী

শেষ দিন অর্থাৎ রবিবার চন্দননগরের যুগের যাত্রীর মঞ্চস্থ ‘ঈশ্বর এক হিরম্ময় পুরুষ’ নাটকটি পরিবেশিত করা হয়। ওই দিনই অনুষ্ঠানের শেষ হয়, বর্ধমান গ্রাফ সোসাইটির ‘যাপন’ নাটক দিয়ে। পাশাপাশি আরও নানান ধরণের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়। জানা গিয়েছে, ১৯৯৮ সাল পথচলা শুরু করে সমবেত প্রয়াস। তাদের রজতজয়ন্তী বর্ষ উপযাপন উপলক্ষ্যেই এই উৎসবের আয়োজন।

Drama festival at Hatgobindapur
উৎসবের সুচনায় বিধায়ক নিশীথ কুমার মালিক সহ বিশিষ্টরা

সংস্থার সম্পাদক গুনময় রায় জানান, ২০১১ সালে শেষবার এ এলাকায় নাট্যোৎসবের আয়োজন করেছিল সমবেত প্রয়াস। তারপর বিভিন্ন সমস্যার কারণে আয়োজন না করা গেলেও এবার সফলভাবে আয়োজন করা হয়েছে নাট্যোৎসবের। যাতেই যেন এই এলাকায় নতুন করে প্রাণ পেল বাংলার সংস্কৃতি। স্থানীয় ও পাশ্ববর্তী অঞ্চল থেকে বহু সাংস্কৃতিক প্রেমী মানুষ নাট্য উৎসব দেখতে ভিড় করেন।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Stay Connected

3,541FansLike
3,210FollowersFollow
2,141FollowersFollow
2,034SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles